Home / Tips And Tricks / কীভাবে আপনার ইউটিউব চ্যানেলটিকে হ্যাকিং থেকে রক্ষা করবেন – 6 টিপস!
ইউটিউব চ্যানেলটিকে হ্যাকিং থেকে রক্ষা করবেন
ইউটিউব চ্যানেলটিকে হ্যাকিং থেকে রক্ষা করবেন

কীভাবে আপনার ইউটিউব চ্যানেলটিকে হ্যাকিং থেকে রক্ষা করবেন – 6 টিপস!

ইউটিউব চ্যানেল আমাদের সবার অনেক সুখের হয় অনেক সাধনার হয় অনেক পরিশ্রমের হয় কিন্তু অনেক সাধনা পরিশ্রমের পরে যদি সেই চ্যানেলটা হ্যাক হয়ে যায় তাহলে কতটা কষ্ট লাগে এটা যার গিয়েছে কেবল সেই জানে আমি বেশ কিছু মানুষের সাথে কথা বলেছি যাদের চ্যানেল অনেক সফল হওয়ার পরে হ্যাক হয়েছে তাদের মধ্যে কেউ কেউ ব্যাক আনতে পেরেছে বেশিরভাগই ব্যাক আনতে পারে নাই তো হ্যাক হওয়ার হাত থেকে আপনি আপনার চ্যানেলকে কিভাবে বাচাবেন আমরা জানি যে হ্যাক হয়ে যাওয়ার পরে দেশে পসিবিলিটি অফ গেটিং আবার এমনও পসিবিলিটি আছে যে নাও পেতে পারেন তাই প্রিপারেশন নেওয়াটা অনেক জরুরি আমরা জানি প্রিভেনশন ইজ বেটার দ্যান কিওর’ আজকে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব যেগুলো আপনি যদি ফলো করেন তাহলে আপনার চ্যানেল টি হ্যাকিং এর হাত থেকে বাঁচাতে পারবেন আর যদি হ্যাক হয়ে যায় তারপরও খুব ইজিলি রিকভার করতে পারবেন তার আগে বলে দিচ্ছি আপনি যদি আমার চ্যানেলে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে প্লিজ সাস্ক্রাইব মাই ইউটিউব চ্যানেল হ্যাকিং এর হাত থেকে বাঁচানোর প্রথম দ্বিতীয় সেটি হচ্ছে মুভিও চ্যানেলটি ব্র্যান্ড একাউন্ট ইউটিউব চ্যানেল

ধরনের একাউন্টে থাকে একটা পার্সোনাল অ্যাকাউন্ট আছে ব্র্যান্ড একাউন্ট পার্সোনাল অ্যাকাউন্ট হচ্ছে যখন আপনি একটা ইমেইল এড্রেস দিয়ে কোন প্রথমটি চ্যানেল টা খুলেন সেটা হচ্ছে আপনার পার্সোনাল ইমেইল একাউন্ট হচ্ছে একটা বিজনেস একাউন্ট দেখে নে আপনি চাইলে মাল্টিপল কোলাবোরেটর’ এড করতে পারেন মানে আপনাদের যদি বিজনেস অর্গানাইজেশন হয় তাহলে মাল্টিপল পার্সোনালিটি ম্যানেজ করতে পারবে কিংবা একটা গ্রুপে হলে আপনার বন্ধুকে নিয়ে চ্যানেল খুললে তারা যেন ম্যানেজ করতে পারে সেজন্য চেয়ে ব্র্যান্ড একাউন্টটা টেনের পার্সোনাল হোক কিংবা বিজনেসের হোক কিংবা গ্রুপের হোক আপনি অবশ্যই অবশ্যই চ্যানেলটিকে ব্র্যান্ড একাউন্ট এ কনভার্ট করে নিবেন এতে সুবিধা হবে প্রাইমারি ওনার থাকে সেই ওনার কে রিমুভ করতে হলে একদিন সময় লাগে অন্যদিকে আপনাদের যদি পার্সোনাল ইমেইল হয় তাহলে হ্যাক হওয়ার সাথে সাথে কিন্তু সে পাসওয়ার্ড রিকভারি ইমেইল সবকিছু রিমুভ করে চেঞ্জ করে দিতে পারবে তখন আর আপনি অ্যাকসেপ্ট পাবেন না তবে আপনি একদিন সময় পাচ্ছেন আপনি যদি আপনার চ্যানেলটা হ্যাক হয়ে গেছে আপনার কাছে আপনার হাতে এখনো একদিন সময় আছে সেই চ্যানেলটা ব্যাকআপ নেওয়ার পরে অবশ্যই সেখানে একজন বা দুইজন ম্যানেজার কিংবা ওনার অ্যাড করে রাখবেন যেন তাদেরকে রিমুভ করলে সাথে সাথে তারা নোটিফিকেশন পায় এবং আপনি ইনস্ট্যান্ট

জানতে পারে যে চ্যানেল হ্যাক হয়েছে এবং হয়েছে একদিন সময়ের মধ্যে আপনি ব্যাগ নিয়ে আসতে পারবেন এবং ব্যাংক একাউন্টে কিভাবে ট্রান্সফার করতে হয় প্রচুর ভিডিও আছে আমার চ্যানেলে একটা ভিডিও আছে যদিও সেটা একটু পুরনো বাট প্রচেষ্টা মোটামুটি আপনার সার্চ করলে নতুন ভিডিও পেয়ে যাবেন আমি আমার ভিডিওটি আয় ব্যাটারি দিয়ে দেবো আপনারা চাইলে দেখে আসতে পারেন ঠিক নাম্বার টু আপনারা যদি অলরেডি ব্র্যান্ড একাউন্টে থাকে কিংবা নতুন করে যেতে ব্যাংক একাউন্টে ট্রান্সফার করেন এরপরের স্টেপ সেটা হচ্ছে আপনার অ্যাকাউন্টের জন্য একটা ইমেইল এড্রেস থাকে সেই ইমেইল এড্রেসটা আপনি কালেক্ট করে রাখুন এটা করার জন্য প্রথমে যাবেন মাই একাউন্ট ডট google.com আমি লিংকটি ভিডিও ডিস্ক্রিপশন লিংকে যাওয়ার পরে আপনি আপনার সকল ব্র্যান্ড একাউন্টের একটা লিস্ট দেখতে পাবেন অবশ্যই আপনার জিমেইল সাইন ইন করা থাকা লাগবে আপনার ইমেইলটা দিয়ে এরপরে সেখানে আপনি যে স্পেসিফিক ব্র্যান্ডে একাউন্টের ইমেইল খুলতে চাইছেন সেই ব্র্যান্ড একাউন্ট এ ক্লিক করবেন ক্লিক করার পরে সেখান থেকে ভিউ পার্সোনাল ইনফরমেশন দেওয়ার পরে পার্সোনাল ইনফরমেশন আছে সেখানে গেলে আপনি দেখতে পাবেন একটি ইউনিক ইমেইল এড্রেস আছে আপনার কালেকশনে রাখুন যত্ন করে সেভ করে রাখুন কারণ কখনো যদি আপনার ইমেইল এড্রেস হ্যাক হয়ে যায় ইমেল আইডি রিমুভ করে ফেলে তারপর একাউন্ট

করতে পারবে না এটা ইউনিক একটি ইমেইল টা চেঞ্জ করতে পারবে না আপনার ইমেইল থেকে যদি কোন ভাবে আপনার চ্যানেল মুখ করে অন্য মেনে নিয়ে যায় তারপরও ব্র্যান্ড একাউন্ট এর আন্ডারে ইমেইল এড্রেসটি থাকবেই ইমেইল দিয়ে আপনি আপনার চ্যানেলে করতে পারবেন এবং ইউটিউব এর সাপোর্টার যদি আপনি মেইল করেন তখনও এই ইমেইলটি আপনার অনেক কাজে দেবে অবশ্যই অবশ্যই মেইলটি কালেকশনে রাখবেন এটা একদমই বেসিক ক্লাস ফোর ইমেল এড্রেস কারণ আপনার ইউটিউব চ্যানেল টা ইমেইল এড্রেস আপনার ইমেইল এড্রেস না হতে পারে সেজন্য একটা স্ট্রং পাসওয়ার্ড দিবেন এবং পাসওয়ার্ডটি অবশ্যই আপার কেস লোয়ার্কেস স্পেশাল কেরেক্টার এবং নাম্বারের কম্বিনেশনে করবেন তাহলে হ্যাক হওয়া অনেক কঠিন এটলিস্ট পুরুষের মত যেগুলো আছে সেগুলো দিয়ে আপনার চ্যানেল হ্যাক করতে পারবে না ঠিক নাম্বার পোর্টেবিলিটি রিকভারি ইমেইল অ্যান্ড ফোন নাম্বার রিকভারি ইমেইল এবং ফোন নাম্বার আমরা অনেক সময় ফোন নাম্বারটা নিজের দেয় কিন্তু ইমেইল দিয়ে রাখে কেউ কেউ ফ্রেন্ডের কিংবা বড় ভাইয়ের কিংবা অপরিচিত কোন একজন মানুষের পেছনে ইমেইল খুলে দিয়েছিল তা রিকভারি ইমেইল টা দিয়ে রাখছে সমস্যাটা হয় দেখুন আপনি যখনই আপনার ইমেইলে নতুন কোন ডিভাইস থেকে লগইন করেন তখন কিন্তু যেটা রিকভারি ইমেইল দেওয়া আছে

নোটিফিকেশন যায় যে আপনার এই ইমেইল এর আন্ডারে একটা ইমেইল আছে খোলা হয়েছিল সেই ইমেইলটি নতুন করে একটা ডিভাইসে সাইন-ইন হয়েছে আপনি দিয়ে রাখেন তাহলে আপনার ইউটিউব চ্যানেল সেটা যদি কেউ একসেপ্ট নিয়ে নেয় সেটা যদি কেউ লগইন করার সাথে সাথে কিন্তু আপনি আপনার সেকেন্ডে ইমেল এড্রেসটা আছে সেটাতে নোটিফিকেশন পাবেন এবং মেদিসাইন করে রাখেন তাহলে সাথে সাথে চলে আসবে এবং আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার প্রাইমারি চ্যানেলটি আছে সেটি নতুন কোন একটা ডিভাইস থেকে সাইন ইন করা হয়েছে সেটি আপনি না হলে সাথে সাথে সেখানে একটা লিংক থাকে যে আপনি যদি সাইন না করে থাকেন তাহলে নেক্সট একটিভিটিস কি হতে পারে আপনি সেটা ফলো করলে সেখানে পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করে এবং রিকভারি ইমেইল বানানো জিনিস গুলো চেঞ্জ করে আপনি চাইলে আবার আপনার একাউন্টে সিকিউর করতে পারবেন সেখানে অবশ্যই অবশ্যই মাথায় রাখবেন রিকভারি ইমেইল আপনি আপনার নিজেরই একটা সেকেন্ড ইমেইল দিন সেই মোবাইল সাইলেন্ট করে রাখো পর্যাপ্ত পরিমাণে সিকিউর রাখবেন এবং সেই ইমেলে নোটিফিকেশন এসএসা j7 এনএক্সট গুলো ফলো করবেন আমি অনেক বড় কিন্তু তার না হওয়ার কারণ

ফ্যাক্টর অফ ইন্টিগ্রেশন লাগানো থাকে না এটা কিন্তু হ্যাক হওয়ার জন্য একটা বড় বড় বন্যার এবিলিটি আপনার চ্যানেলে বা আপনার জিমেইলে অবশ্যই অবশ্যই টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন লাগিয়ে রাখবেন কিভাবে লাগাতে হয় ইউটিউবে টিউটোরিয়াল পাবেন একদম ইজি একটা প্রসেসিং করতে গেলে আপনার ফোনে একটা মেসেজ আসবে সেই মেসেজে একটা কোড আসবে সেটা না দেওয়া পর্যন্ত লগইন হবে না যদিও কিছু ঠিকই আছে এইগুলো বাইপাস করা সেগুলো খুব কম পরিমাণে হ্যাকারই আছে যারা জানে আপনি যদি একটু ফ্যাক্টর অফ ইন্টিগ্রেশন এনাবল করেন তাহলে প্রীতি ম্যাচ 9595 99 শতাংশ সময় আপনি থাকবেন হ্যাকিং এর হাত থেকে লিস্ট সেপ্টেম্বর সেখানে অনেক সময় বিভিন্ন টাইপের লিংকগুলোতে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকুন কোন কোন লিংকে ক্লিক করবেন না সেটা কিভাবে বুঝবেন প্রথমত ইউটিউব চ্যানেল চালায় তাদের কাছে প্রচুর পরিমাণে স্পন্সরশীপের দিলাসে বিভিন্ন দেশ থেকে বিভিন্ন কোম্পানি আপনাকে মেইল পাঠাবে এবং সেখানে কেউ কেউ আপনাকে প্রোডাক্ট অফার করবে অনেক দামি দামি প্রোডাক্ট কেউ আইফোন অফার করছে কেউ হয়তো আমি শুধু আমি বলতেছি কেন

সেই স্যামসাংয়ের কোন একটা ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস আপনাকে অফার করলো যদি দেখতে না না হয় ট্রেনে অন্যান্য যে কোন চ্যানেলে কোন একটা সাইটে প্রমোশনের জন্য ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য অপেক্ষা করতে আগ্রহী হতে পারে এবং সেখানে একটা জিনিস কম থাকবে সবসময় সেটা হচ্ছে তারা প্রাইজটা উল্লেখ করে দেয় এবং আপনি কি 1000-2000 টাকা দেবে বলে আপনাকে জানাবে কিন্তু খেয়াল রাখবেন যখনই কোন কোন কোম্পানি আছে তারা কিন্তু প্রাইস মেনশন করে নাড়িয়ে নিন এক পারসেন্ট কোম্পানি থাকতে পারে যারা হচ্ছে প্রাইস দিয়ে তারপরে আপনাকে স্পন্সরশীপের জন্য আপলোড করবে খুব কম কোম্পানি আছে এরকমটা করে যদি আপনি প্রাইস টা দেখেন অনেক বেশি তাহলে বুঝবেন যেটা স্ক্যাম এবং তারা যদি কোন লিংক পেয়ে সেটাতে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকুন আর যদি কোন কোম্পানি প্রাইস 1050 দেয় তাহলে সেটা রিজনাবল প্রাইস হবে আপনি দেখলে বুঝবেন আর বেশিরভাগ সময় এটা হয় না কারন চিন্তা করতেছে তার আগে আপনার সাথে কথা বলবে আপনার সাথে করবে আপনার কাছ থেকে প্রাইস নেবে দেন তারা হচ্ছে তাদের মতামত দেবে তার আগে এরকম 1000 ডলার আপনাকে দেখব আপনি ভিডিওটা করেন এরকম খুব কম সাইটে আছে বা খুব কম কোম্পানিই আছে যারা আপনাকে স্পন্সর করতে আসবে এর বাইরে

লোভনীয় লিংক আসে ফর এক্সাম্প্লে একটা লিংক আসতে পারে যে আপনার চ্যানেলে স্ট্রাইক আসছে ইউটিউব থেকে আসলো ইউটিউবে টেমপ্লেটে এটা হচ্ছে স্ক্যাম কিংবা ফিশিং লিংক বলতে পারেন যে আপনাকে একটা লিংক দেওয়া হল এখানে বললে আপনার চ্যানেলে স্ট্রাইক স্ট্রাইক ওঠানোর জন্য এখানে ক্লিক করুন আপনার নেক্সট ছবিটির জন্য এখানে কি কোন এরকম সবসময় আপনি যদি মানে আনিমেল দেখা যায় কথা নাই ভিডিওতে আগে ভিডিওটা চেক করবেন চেক করবেন তারপর আপনি চেক করবেন যে ইমেল এড্রেসে থেকে এসেছে সেই ইমেইল এড্রেস টা কি youtube.com ডোমেইন থেকে আসছে কিনা নাকি অন্য কোনো ডোমেইন থেকে আসছে এগুলো চেক করে তারপরে পোস্ট করবেন এখানে অনেক ধরন আছে যেগুলা ফলো করতে হবে সবচেয়ে ভালো হয় কোন একটা লিংকে ক্লিক করার আগে অবশ্যই অবশ্যই আপনি ভেরিফাই করে নিবেন আপনার চ্যানেলটা সাইন আউট করে নিবেন ইনকগনিটো মোডে লিংকটা পেস্ট করে তারপরে যাবেন এবং সেখানে কোন পাসওয়ার্ড চাইলে কক্ষনোই দেবেন না যদি আপনি করতে পারেন তাহলে আপনার চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচতে পারবেন অনেকের সাথে করিনি আপনি করছেন কোন কোম্পানির সাথে

করছেন তখন সব সময় আপনার চ্যানেলের ম্যানেজার যে পারমিশন টা সেটা শুধু সেই চ্যানেলটা দেবেন বা ঐ ব্যক্তিকে দিবেন যদি আপনার চ্যানেল হয় আর যদি গ্রুপে কাজ করেন সেটা অন্য কথা সবারই যদি সময় থাকে তাহলে তো সবাই ওনারশিপ নিবে কিন্তু অবশ্যই তখন ট্রান্সফারেন্সি পেমেন্ট করবেন কোন এডিট করে নিবেন প্রপার ডকুমেন্টেশন করে নিবেন যেন প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে পারেন প্রতারণা থেকে বাঁচার পদ্ধতি বললাম প্রচন্ড থেকে বাঁচতে হলে এই যে ডকুমেন্টেশন গুলা ট্রান্সফারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল করবেন এবং যাদেরকে বিশ্বাস করেন কেবল তাদের কাছে আপনার চ্যানেলের এক্সেস দিবেন তাহলে আশা করি আপনার চ্যানেলের থাকে যদি হ্যাক হয়ে যায় তাহলে কি করবেন আমরা এই ভিডিওটা part-2 বানাবো যেখানে চ্যানেল হ্যাক হয়ে গেলে সেটা কিভাবে ফেরত আনতে পারবা ফেরত আনার প্রচেষ্টা কি সেই বিষয়ে আলোচনা করব আর ভিডিওটি আপলোড হয়ে গেলে আয় বাটনে কিংবা ভিডিও ডিস্ক্রিপশন আমরা আপলোড করে দেবো সেখান থেকে আপনি দেখে আসতে পারেন হয়েছিল আমাদের ছয়টা টিপসগুলো ফলো করলে আপনার চ্যানেলকে আপনি হ্যাকারের হাত থেকে কিছুটা হলেও বাঁচাতে পারবেন

বিরানি বিরানি বিরানি চাই ছিলাম আজকের ভিডিও আশা করি ভিডিওটি আপনাদের ভালো লেগেছে যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে একটা লাইক দিবেন কমেন্ট করে জানাবেন কেমন লাগলো আপনাদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না

About Editorial Staff

Hey, my name is Sumon, I am a Bangladeshi YouTuber, blogger, actor, and many more. Thanks for reading this article.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: